সর্বশেষ খবর

   ‘মৃত শিশুর মাতৃত্ব নিয়ে সন্দেহ’ তদন্ত কমিটি গঠন    শুটিং না করেও টিজারে মুনমুন, পরিচালক বলছেন ভিন্ন কথা    বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলবেন সাকিব-তামিম    বিয়ানীবাজারে জেনোসিডিল সহ যুবক আটক    বজ্রপাতের সময়ে যেসব বিষয়ে সতর্ক থাকতে হয়    এবার গোপালগঞ্জে বাসচাপায় এক নারী নিহত    সিকৃবিতে ‘সেলফ এসেসমেন্ট’ কমিটির কর্মশালা অনুষ্ঠিত    প্রভাষক জুয়েল হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন    সিলেটে মশা নিধনে কার্যকর পদক্ষেপের দাবি    রাজনগরে গৃহবধূ খুন    বাংলাদেশ লোকসংস্কৃতি ফোরাম এর সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি অসিত বরণ    ধোপাদিঘীর ‘ক্ষতি নয়,সৌন্দর্যবর্ধন করছে’ সিসিক    সিলেট চেম্বারে এসএমই উদ্যোক্তাদের ব্যবসা বিকাশে ই-কমার্স শীর্ষক সেমিনার    সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক    শাবিতে আসছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান    কাবুলে জঙ্গি হামলা, নিহত বেড়ে ৬৩    পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে তারেকের লিগ্যাল নোটিশ    বিএনপির মিছিলে পুলিশি বাধা    জাতীয় পার্টিতে বিএনপির অনেক নেতাই যোগ দেবে: এরশাদ    সংবাদ সম্মেলনে রিজভী তারেক রহমান পাসপোর্ট জমা দিলে সবাইকে দেখান


খবর - শিক্ষা-ক্যাম্পাস

সিকৃবিতে ‘সেলফ এসেসমেন্ট’ কমিটির কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিকৃবি) আইকিউএসি-এর অধীনে কৃষি অর্থনীতি ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সেলফ এসেসমেন্ট কমিটির তিনদিন ব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. গোলাম শাহি আলম ও রেজিস্টার বদরুল ইসলাম শোয়েবের সাথে গভর্নেস এর উপর মত বিনিময়ের মাধ্যমে উক্ত তিনদিনের কার্যক্রম শুরু হয়।

এতে উপস্থিত ছিলেন আইকিউএসির প্রধান প্রফেসর ড. মিটু চৌধুরী, সদস্য প্রফেসর ড. জীবন কৃষ্ণ সাহা ও সহকারী অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান।

এছাড়াও এক্সটারনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স এক্সপার্ট হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এসোসিয়েট প্রফেসর ড.খাইরুল আজওয়ান বিন ইসমাইল (ইউনিভার্সিটি অফ মালয়েশিয়া পারলিস) , লোকাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স এক্সপার্ট হিসাবে উপস্থিত বিস্তারিত

স্থগিত হওয়া এইচএসসির ভূগোল দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা ১৪ মে

এইচএসসির ভূগোল দ্বিতীয় পত্রের সোমবারের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ মে। পরীক্ষা স্থগিতের পর ঢাকা বোর্ড পরীক্ষার নতুন এ তারিখ নির্ধারণ করে।
 
রোববার নেত্রকোনার দুর্গাপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজে ভূগোল প্রথম পত্রের প্রশ্নের পরিবর্তে স্থানীয় ট্রেজারি থেকে ভুলবশত দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্ন বিতরণ করা হয়। স্থানীয় জেলা প্রশাসন বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অবহিত করলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহবার হোসাইন পরীক্ষা স্থগিত করেন।
 
অভিন্ন পদ্ধতিতে এ পরীক্ষা আয়োজিত হওয়ায় আগামীকাল সোমবারের ভূগোল দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। তবে অন্যান্য পরীক্ষা স্বাভাবিকভাবে চলবে বলে তিনি জানান।
 
এদিকে, এ ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। একটি স্থানীয় জেলা প্রশাসক ও অন্যটি ঢাকা বোর্ডের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের অধীনে হবে। এ কমিটি নেত্রকোনার দুর্গাপুর মহিলা কলেজ কেন্দ্রে ভূগোল প্রথম পত্রের প্রশ্নপত্রের পরিবর্তে কীভাবে দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্নপত্র দেয়া হলো তা খতিয়ে দেখবে। তদন্ত কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।
 
উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়েছে ২ এপ্রিল শুরু হয়। চলবে ১৩ মে পর্যন্ত। লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে ১৩ মে। ১৪ মে ব্যবহারিক পরীক্ষা শুরু হয়ে ২৩ মে শেষ হবে।
বিস্তারিত

শাবিতে বিভাগীয় প্রধান কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্ছনার অভিযোগ

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজ বিভাগের বিভাগীয় প্রধানের দ্বারা লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের এক শিক্ষক।

উপাচার্য বরাবর দাখিল করা অভিযোগ পত্রে এই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘গত ১৬ এপ্রিল বিভাগের জরুরি সভায় ১৩২ নম্বর ল্যাবরেটরি রুমের দায়িত্ব বন্টন নিয়ে বিভাগের প্রধানের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বিভাগীয় প্রধান তীব্র উত্তেজিত হয়ে আমাকে গেইট আউট গেইট আউট বলে আমার ডান হাতে প্রচন্ডভাবে আঘাত করেন।’

তিনি বলেন, ‘এসময় উপস্থিত থাকা অন্যান্য সহকর্মীরা বিভাগীয় প্রধানকে থামিয়ে দিলে পরক্ষণেই আবার উত্তেজিত হয়ে আমাকে আক্রমণ করতে তেড়ে আসেন। পরে অনেক ধস্তাধস্তি করে সহকর্মীরা আবার তাকে থামিয়ে দেন।’

অভিযোগপত্রে ‘বিভাগীয় প্রধান’ কর্তৃক লাঞ্ছনার কথা উল্লেখ করা হলেও কোন ব্যক্তির নাম উল্লেখ করেননি তিনি।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান হচ্ছেন সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শফিকুল ইসলাম।

এ ঘটনার সময় বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকদের মধ্যে এটিএম শহিদুল হক মজুমদার, মো. জাকারিয়া, ড. মো. সাইফুল আলম, ড. এম ফরহাদ হাওলাদার এবং সিফাত হোসাইন উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেন রফিকুল ইসলাম।

সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, বিভাগের একটা ল্যাবরুমে গুরুত্বপূর্ণ একটা প্রোজেক্টের কাজ চলছে। আর সে রুমটার মূল্যবান জিনিসপত্র অভিযুক্ত শিক্ষক কুক্ষিগত করতে চাইছে। তাতে বাঁধা দেওয়ার এ নেক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে সে।

এ বিষয়ে খোঁজ নিতে পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, বিভাগের একটা সামান্য ঘটনাকে বাজেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। বিভাগের মিটিংয়ের এ বিষয় বাইরে বলার মতো এমন কিছু ঘটেনি। তবে এ বিষয়ে উপাচার্য মহোদয় অবগত আছেন বলে জানান তিনি।

বিস্তারিত

পহেলা বৈশাখে শাবির ৩২০ একর

‘আজি নতুন রতনে ভূষণে যতনে/ প্রকৃতি সতীরে সাজিয়ে দাও’-আজ নব আলোর কিরণশিখা শুধু প্রকৃতিকে নয়, রঞ্জিত করে নবরূপে সাজিয়ে যাবে প্রত্যেক বাঙালির হৃদয়কোণও। নব আলোর শিখায় প্রজ্বলিত হয়ে শুরু হবে আগামী দিনের পথচলা। যতসব জীর্ণতা, সব মঙ্গলের অগ্নিস্নাতে পূণ্য করতে আসছে নতুন বর্ষ। আসছে পহেলা বৈশাখ ১৪২৫।
দেশের উত্তর-পূর্ব সীমান্তে অবস্থিত দুটি পাতা একটি কুঁড়ির দেশ এবং ৩৬০ আউলিয়ার পূণ্যভূমি সিলেটে পহেলা বৈশাখ মানেই শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
প্রেমিক-প্রেমিকা, বন্ধু-বান্ধব কিংবা পরিবার; ঘোরাঘুরি আর বাঙালিয়ানা মানেই শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়েরর ৩২০ একর।
সারাদেশের ন্যায় ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী উৎসবের প্রস্তুতি নিচ্ছে সিলেটের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী কিংবা সাংস্কৃতিক সংগঠক কেউই প্রস্তুতির বাইরে নেই। বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্যের পার্বণ বাংলা নববর্ষ। সংস্কৃতির শেকড়, চেতনায় পহেলা বৈশাখ আমাদের জাতিসত্ত্বার বিকাশধারার এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়।
বাসন্তীরাঙা শাড়ি কিংবা শ্বেতশুভ্র পাঞ্জাবি, পান্তা-ইলিশ, মঙ্গলশোভাযাত্রায় বছরের একটি দিন পুরাতন জরাজীর্ণতা, সংকীর্ণতা কিংবা কুপমন্ডুকতা পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যেতে সবাই নিচ্ছে শেষ মূহুর্তের প্রস্তুতি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যান্টিন থেকে শুরু করে ক্যাফেটেরিয়া, ফুডকোর্ট কিংবা টং, শহীদ মিনার থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় সেন্টার কিংবা গোলচত্বর- বৈশাখের উন্মাদনা ছড়িয়েছে সবখানে।
নতুনরূপে সাজানো হচ্ছে বিভিন্ন বিভাগ, জায়গায় জায়গায় বসানো হচ্ছে বৈশাখী স্টল। এ যেন এক প্রাণের মেলা, নিজেদের সংস্কৃতির শেকড়ে ফিরে যাওয়া। চায়ের কাপে কিংবা আড্ডায় শুধুই পহেলা বৈশাখ।
পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহ। তবে বর্ষবরণের মূল অনুষঙ্গ মঙ্গল শোভাযাত্রাকে রাঙ্গায়িত করতে বরাবরের মতো এবারও রঙ-তুলি নিয়ে বেশি ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্যবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের। সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের “ই” বিল্ডিং এর সামনে রাত জেগে তৈরি করছে মঙ্গল শোভাযাত্রার জন্য বিভিন্ন প্রাণীর ভাস্কর্য,সড়ক আল্পনা, পুতুলনাচ, বায়োস্কোপসহ অন্যান্য সামগ্রী।

স্থাপত্য বিদ্যার তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রেদোয়ান মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম প্রত্যয় জানান, ‘আমরা শান্তির প্রতীক হিসেবে গ্রামীণ জীবনের বর্ণিল উপকরণের সাথে মিল রেখে তৈরি করছি গ্রামীণ পশু-পাখির কিছু প্রতীকি জিনিস-যা শান্তির বার্তা বহণ করে।আমাদের আয়োজনে বৈশাখী শোভাযাত্রা ছাড়াও রয়েছে পুতুল নাচ এবং বায়োস্কোপ প্রদর্শনী। সারাদিনব্যাপি বায়োস্কোপ প্রদর্শনীতে থাকছে অন্যরকম চমক।
পহেলা বৈশাখ উদযাপন প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক জহীর উদ্দীন আহমেদ সিলেটের সকালকে বলেন ” বিশ্ববিদ্যালয়ে সকাল সাড়ে ৯টায় মঙ্গলশোভাযাত্রার মাধ্যমে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক নিরাপত্তার দিকে সজাগ রেখে মঙ্গলশোভাযাত্রায় কোনো প্রকার ভুভুজেলা ও মুখোশ ব্যবহার করা যাবে না। এছাড়াও দিনব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বাউলগান, মোড়গ লড়াই, সাপখেলাসহ বিভিন্ন বিভাগের আলাদা আলাদভাবে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। পহেলা বৈশাখের সকল অনুষ্ঠান বিকাল সাড়ে ৪টার মধ্যে শেষ করতে হবে।
এদিকে, পহেলা বৈশাখে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থায় পুলিশের অবস্থান শক্তভাবে রয়েছে বলে জানিয়েছেন জালালাবাদ থানার সহকারী কমিশনার(এসি) মুনাদির ইসলাম। তিনি সিলেটের সকালকে জানান, যেকোনো বড় উৎসবে পুলিশের অবস্থান থাকে সক্রিয়ভাবে। পহেলা বৈশাখে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক নিরাপত্তায় কোনো ঘাটতি থাকবে না।
উৎসব, লোকাচার, কেককাটা, বৈশাখী প্রদর্শনী, পিঠা উৎসব, আলতা কিংবা মেহেদী উৎসব, মঙ্গল শোভাযাত্রাসহ সব আয়োজনে নতুন বছরের রক্তরাঙা সূর্যকে নবরূপে বরণ করে নিতে , আমাদের সংস্কৃতির শেকড়ে ফিরে যেতে প্রস্তুত ৩২০ একরের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

বিস্তারিত

শাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার শিক্ষার্থীদের সংগঠন ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে 'চলো এক হই বন্ধনে তিতাসের কল্যাণে' স্লোগানকে ধারণ করে এক  আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ২০১৮-১৯ সেশনের জন্য নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

সমাজকর্ম বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল রোমানকে সভাপতি ও বিএমবি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আব্দুল বাসিরকে সাধারণ সম্পাদক করে এ কমিটি ঘোষণা করেন সংগঠনটির উপদেষ্টা ও গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আলমগীর কবির।
 
কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হন ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী উম্মে কুলসুম মিলি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক জহির উদ্দিন আহমেদ, ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আবু হেনা পহিলসহ সংগঠনটির সাবেক ও বর্তমান সদস্যরা।

বিস্তারিত

ছাত্রলীগের প্রতি সতর্ক আহবান অধ্যাপক জাফর ইকবালের

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও কথাসাহিত্যিক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বিসিএসসহ সব ধরনের সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের আন্দোলনেরর ঘটনায়  ছাত্রলীগ যেন কোন ভুল না করে এ বিষয়ে তাদেরকে সতর্ক করেছেন।

বুধবার সকাল ১১টায় সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া আইআইসিটি ভবনে সাংবাদিকদের সাথে সারাদেশে চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলন প্রসঙ্গে কিছু প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

জাফর ইকবাল বলেন, যখন সরকার কোন কিছুর সম্মুখীন হয়, তখন সরকারের পুলিশ বাহিনীর সাথে ছাত্রলীগও এসে পড়ে। ছাত্রলীগ যারা করে তারাওতো ছাত্র, তারা পড়াশোনা করবে। তারা যেন কোন ভুল না করে এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে যেন কোন সংঘাত সৃষ্টি না হয়।

তিনি আরো বলেন, তরুণ প্রজন্মের উপর আমার আস্থা রয়েছে। ৫২র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলনে তরুণরা নেতৃত্ব দিয়েছে। আমি আশা করব তারা যেন সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়।

এ সময় তিনি বলেন, ৫৬ শতাংশ কোটা যে হিসেবে অনেক বেশি। একসময় হয়তো এটার প্রয়োজন ছিল, তবে তা এখন একটা সঙ্গত সংখ্যায় নামিয়ে আনা দরকার। কোটা সংস্কারের কথা বলে প্রচ্ছন্ন ভাবে অনেকে মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে কথা বলছে। এ সময় তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি যেন কোনভাবেই অশ্রদ্ধা না হয়, সেইদিকে খেয়াল রাখার আহবান জানান।

বিস্তারিত

শাবিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্রধান ফটকে অবস্থান

বিসিএসসহ সব ধরনের সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে বরাবরের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নিয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটা সংস্কার আহ্বায়ক কমিটি ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
এরই প্রেক্ষিতে সকাল ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান  করে কোটা সংস্কারের পক্ষে স্লোগান দিতে থাকে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা দ্রুত কোটা সংস্কারসহ, সংসদে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরি এর  “রাজাকার” বক্তব্যের প্রত্যাহার দাবী করেন।

এদিকে ক্যাম্পাস সূত্রে  জানা যায়, বুধবার আন্দোলনকারীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সকল বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের ক্লাস, পরীক্ষা বর্জন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা প্রধান ফটকে অবস্থান নেয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়গামী শিক্ষক-কর্মকর্তাদের প্রবেশ করতে দিলেও শিক্ষার্থীদের বিআরটিসি বাস ফটকের সামনে সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়ক থেকেই ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর চলাচলকারী শিক্ষার্থীদের শাটলবাস।


বর্তমানে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে ৫৬ শতাংশ বিভিন্ন ধরনের অগ্রাধিকার কোটা রয়েছে। আর বাকি ৪৪ শতাংশ নিয়োগ হয় মেধা কোটায়।
এ জন্য এই কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা।

বিস্তারিত

কোটা সংস্কারের পক্ষে শাবি উপাচার্য

বিসিএসসহ সব ধরনের সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে সারাদেশে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চলমান শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যৌক্তিক বলে দাবি করেছেন সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলনের বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ প্রসঙ্গে শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে মেধাবীদের প্রয়োজন। মেধাবীরা সামনে এগিয়ে আসলে আমাদের দেশ আরো এগিয়ে যাবে। তাই আমি চাই মেধার যথাযথ মূল্যায়ন করা হোক।’
কোটা সংস্কারের দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অত্যন্ত যৌক্তিক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। তাই সর্বজন স্বীকৃত যৌক্তিক এই দাবি সরকার অবশ্যই বিবেচনা করবে বলে আমার বিশ্বাস।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি মনে করি বিষয়টার শান্তিপূর্ণ সমাধান হবে। দেশের স্বার্থে, মেধার স্বার্থে যে সিদ্ধান্ত আসবে সেটা সকলে মেনে নেব।’

এ সময় শাবি উপাচার্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশি হামলা এবং দুর্বৃত্ত কর্তৃক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। শিক্ষার্থীদের উপর হামলার ঘটনায় তিনি বলেন, ‘আমার ছাত্রদের উপর হামলা আমি কোনভাবেই সমর্থন করি না। পুলিশ প্রশাসন যাতে দ্রুত তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয় এই দাবি থাকলো।’

বিস্তারিত

ঢাবি শিক্ষার্থীদের হুমকির অভিযোগে শাবিতে প্রতিবাদ

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রশাসন ও ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের ভয়ভীতি ও হুমকী প্রদান অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

এ ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে মানববন্ধন করা হয়। পরবর্তীতে একটি মৌনমিছিল বের করে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার একই স্থানে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে শিক্ষার্থী সুদীপ্ত ভাস্কর বলেন, সোমবার রাতে কোটা সংস্কারের জন্য আন্দোলনরত ঢাবি শিক্ষার্থীদেরকে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে ভয়ভীতি প্রদান করা, যা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

কোটা সংস্কারের দাবি আমাদের সকলের উল্লেখ করে শাবির লোকপ্রশাসন বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী জান্নাতে নাঈম বলেন, তবে এই কর্মসূচিতে এ বিষয়ে কোন কথা বলছি না। আমরা শুধু সোমবার রাতে ঢাবি ক্যাম্পাসে ভীতি-সন্ত্রস্থ পরিবেশ তৈরি করে শিক্ষার্থীদের হুমকী প্রদান করার প্রতিবাদ করছি।

সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে দীর্ঘদিন যাবত আন্দোলন করে আসছে ‘বাংলাদেশে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’। দীর্ঘ আন্দোলনের পর রবিবার রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেয়া আন্দোলনকারীদের ওপর রাতে হামলা চালায় পুলিশ। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় সকলে।

এদিকে, সোমবার রাতে ঘটে যাওয়া ঘটনায় গণমাধ্যম নিরব ভূমিকা পালন করেছে অভিযোগ করে সমাবেশে গণমাধ্যমের সমালোচনাও করেন বক্তারা।

কেন্দ্রীয় নেতাদের ডাকে সামনের দিনে কোটা সংস্কারের আন্দোলনে সকল শাবি শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে বলেও সমাবশে ঘোষণা করা হয়।

বিস্তারিত

ঢাবি ভিসির বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ

শাহবাগ-টিএসসিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকে কেন্দ্র করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়েছে আন্দোলনকারীরা। এসময় তারা বাসভবনের সামনে রাখা গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

রবিবার (৮ এপ্রিল) রাত দেড়টা থেকে ২টার মধ্যে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরো ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়ে।এ সময় আন্দোলনকারীরা উপাচার্যের বাসভবনের ভেতর তছনছ ও ব্যাপক ভাঙচুর করেন।

বাসভবনের শোবারঘর থেকে বাথরুম, রান্নাঘরসহ সবখানে তারা ভাঙচুর চালান। সেই সময় তারা বাসভবনের সামনে আগুন ধরিয়ে দেন। বাসভবনের সামনে থাকা গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেন আন্দোলনকারীরা। বিপুলসংখ্যক পুলিশ নীলক্ষেতের দিক দিয়ে ক্যাম্পাসের ভেতর প্রবেশ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। সেই সময় কলাভবন ও মল চত্বর এলাকায় পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

সাধারণ শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন- ভিসির অনুমতিতেই পুলিশের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেছে। টিএসসি, কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি, চারুকলা অনুষদের ভেতরে পুলিশ টিয়ারশেল, কাদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে।

এর আগে রবিবার (৮ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কোটা সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে অবস্থান নেয় কয়েক হাজার শিক্ষার্থী। প্রায় ৪ ঘণ্টার শাহবাগ মোড় অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। রাত ৮টার দিকে আন্দোলনকারীদের হামলা চালায় পুলিশ। পুলিশের লাঠিপেটা ও কাঁদানে গ্যাসের কারণে আন্দোলনকারীরা শাহবাগ ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

পরে শিক্ষার্থীরা চারুকলা অনুষদের সামনে এবং টিএসসির সামনে অবস্থান নেয়। দফায় দফায় সংঘর্ষে জড়ায় শিক্ষার্থী ও পুলিশ। মধ্য রাতে দিকে পুলিশের সঙ্গে যোগ দেয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও। এতে টিএসসি এলাকা পর্যন্ত রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এ সময় পুলিশের টিয়ারশেল, কাদানে গ্যাস, জলকামান নিক্ষেপ ও ছাত্রলীগের হামলায় আহত হয়েছে কমপক্ষে ১৫০ জন। আটক করা হয়েছে বেশ কয়েকজনকে।

বিস্তারিত

কোটা সংস্কারের দাবিতে শাবির প্রধান ফটকে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

সব ধরনের সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে সারা দেশের শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীদের ন্যায় আন্দোলনে নেমেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
সোমবার সকাল ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তারা অবস্থান নেয় এবং শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করতে থাকে।
রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেয়া শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপের  ঘটনায়  দিনব্যাপী ছাত্র ধর্মঘটের ডাক দেয় শাবির কোটা সংস্কার আহ্বায়ক কমিটি। এ প্রেক্ষিতে সকাল ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান করে তারা।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পরবর্তীতে পৌনে ৮টার দিকে শাবি শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা প্রধান ফটকে এসে তাদেরকে গেট অবরোধ না করার অনুরোধ করে। পরে শিক্ষার্থীরা গেটের পাশেই অবস্থান করে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে অল্প কিছু বিভাগে দু-একটা ক্লাস-পরীক্ষা হয়েছে বলে ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে।
আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, কোটা সংস্কারের দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করছে তারা। কোন ধরনের বৈষম্যের সাথে আপোষ করবে না তারা।
শাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান বলেন, অহিংস আন্দোলন করার গণতান্ত্রিক অধিকার এই দেশে সকলেরই রয়েছে। আমরা তাদেরকে বলেছি আপনারা অহিংস
আন্দোলন করতে পারেন তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস পরীক্ষা বন্ধ করে নয়।
এদিকে আন্দোলনকে বানচাল করতে ইমরান খানের উপর অভিযোগ উঠেছে। শাহপরাণ হল থেকে আন্দোলনে আসার সময় শাবি ও সিলেট বিভাগীয় সম্বন্বয়ক মোঃ নাসির উদ্দিনের ফোন কেঁড়ে নিয়ে হলে দেড় ঘণ্টা আটকিয়ে রাখে শাখা ছাত্রলীগ। তবে এমন নেক্ককাজনক ঘটনা ইমরান খানের উপস্থিতিতে ঘটানো হয়েছে বলে জানা গেছে। পরবর্তীতে বিষয়টি জানাজানি হলে তার ফোন দিয়ে দেওয়া হয়।
শাবি ও সিলেট বিভাগীয় সম্বন্বয়ক মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, হল থেকে আসার সময় মোবাইল ফোন কেঁড়ে নিয়ে তাকে  শাহপরাণ হলের গেস্ট রুমে তাকে দেড় ঘণ্টা আটকিয়ে রাখা হয়। কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের আন্দোলন চলবে। আজ ক্যাম্পাসে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলের অনুমতি চাওয়া হলে আমাদেরকে অনুমতি দেয়নি শাবি প্রশাসন।
এ ঘটনায় ক্যাম্পাসে কোন ধরনের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলের অনুমতি দিবেন না বলে জানান শাবি প্রক্টর জহীর উদ্দিন আহমদ।
বর্তমানে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে ৫৬ শতাংশ বিভিন্ন ধরনের অগ্রাধিকার কোটা রয়েছে। আর বাকি ৪৪ শতাংশ নিয়োগ হয় মেধা কোটায়।
এজন্য এই কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা।
শাহবাগে পুলিশের টিয়ারশেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় এখন পর্যন্ত প্রায় ৩০ জন আন্দোলনকারী আহত হয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এছাড়া তিন পুলিশ সদস্য ও এটিএন বাংলার ক্যামেরাম্যান মনির আহত হয়েছেন।

বিস্তারিত

১২ ঘন্টা পর পুনরুদ্ধার শাবির ওয়েবসাইট

হ্যাকিংয়ের ১২ ঘন্টা পর শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট পুনরুদ্ধার হয়েছে। বুধবার দিবাগত রাত বারোটার দিকে ওয়েবসাইটটি হ্যাকিংয়ের শিকার হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সেন্টারের পরিচালক  অধ্যাপক ড. জহিরুল ইসলাম জানান, ওয়েবসাইটটি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে এসে গেছে। বর্তমানে সাইটটির নিরাপত্তার যেসব ক্রটি ছিল তা খতিয়ে দেখে সুরক্ষিত করার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। সেই সাথে হ্যাকার কে তা অনুসন্ধানের চেষ্টা চলছে।

এর আগে ২০১৪ সালের ২৫ নভেম্বর, ২০১৫ এর ২৬ আগস্ট এবং একই বছরের নভেম্বরেও হ্যাকারদের কবলে পড়েছিল শাবির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট। ২০১৬ সালের ২৯ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটটি নতুনভাবে উদ্বোধন করার পর তা অত্যন্ত সুরক্ষিত বলে দাবি করেছিলেন সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা। তবে আবারও হ্যাকিংয়ের শিকার হওয়ায় প্রশ্নবিদ্ধ হল ওয়েবসাইটের নিরাপত্তার বিষয়টি। 
বিস্তারিত

শাবির ওয়েবসাইট হ্যাকড

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট হ্যাকারের কবলে পড়েছে। গতকাল বুধবার রাতে একজন হ্যাকার সাইটটি তাঁর নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেয়।

বুধবার গভীর রাতে এটি হ্যাক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক মো. জহিরুল ইসলাম।

গতকাল গভীর রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লুলয সেক নামে একটি আইডি থেকে ইংরেজিতে পোস্ট দেওয়া হয়। বাংলায় তাঁর অর্থ দাঁড়ায়, ‘নিরাপত্তা? এটা একটা বিভ্রম! সাস্টের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ডাউন করা হয়েছে। আমি কে? সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের।’

ওয়েবসাইটটিতে অনেকে ঢুকে দেখেন, হোমপেজে বিভিন্ন কথাবার্তা লেখা। পাশাপাশি ওয়েবসাইটটিতে ঢুকলে কিছুক্ষণ পর বাজনা বাজছে।

অধ্যাপক মো. জহিরুল ইসলাম জানান, ওয়েবসাইটটির কার্যক্রম এখন বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে কি কারণে এটি হ্যাক করা হয়েছে সেটা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। এছাড়া ওয়েবসাইটে কোন ধরনের নিরাপত্তার ঘাটতি আছে কিনা সেটাও দেখা হচ্ছে। আজকেই আবার ওয়েবসাইটটি সচল করা হবে বলেও জানান তিনি।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, বুধবার গভীর রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক থেকে এ ওয়েবসাইটের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। তবে এটি শাবির সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা হ্যাক করতে পারে বলেও গুঞ্জন উঠেছে ক্যাম্পাসে।

বিস্তারিত

লাইব্রেরি পরিদর্শনে গিয়ে ২৪ শিক্ষার্থীকে পেলেন শাবি উপাচার্য

নিরাপদ ও শিক্ষার্থীবান্ধব ক্যাম্পাসের দাবিতে উপাচার্য বরাবর চার দফা দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি এবং প্রায় ৪০০০ শিক্ষার্থীর গণস্বাক্ষর প্রদানের উপর ভিত্তি করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ আকস্মিক লাইব্রেরি পরিদর্শনে এসে লাইব্রেরীতে মোট ২৪ জন শিক্ষার্থীকে পেয়েছেন।

সোমবার রাতে শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপির প্রেক্ষিতে এ পরিদর্শন করেন শাবি উপাচার্য। এর আগে দুপুরে উপাচার্য বরাবর চার দফা দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যে দু’টি দাবি গ্রন্থাগার কেন্দ্রীক হওয়ার প্রেক্ষিতে গ্রন্থাগার পরিদর্শনে আসেন। এসময় তার সাথে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা ছিলেন।

সূত্র জানায়, সোমবার দুপুরে সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে উপাচার্য বরাবর চার দফা দাবি সম্বলিত একটি স্মারকলিপি প্রেরণ করা হয় যার মধ্যে প্রথমে ছিলো সপ্তাহের সাতদিন সকাল আটটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত লাইব্রেরি খোলা রাখা। এছাড়া দ্বিতীয় দাবিটিও লাইব্রেরি কেন্দ্রিক হওয়ায় তিনি লাইব্রেরি পরিদর্শনের সিদ্ধান্ত নেন।

পরিদর্শনে এসে তিনি লাইব্রেরি তৃতীয় ও চতুর্থ তলার বিভিন্ন রিডিং রুমে সর্বমোট ২৪ জন শিক্ষার্থীকে পান। এসময় তাদের সাথে তিনি লাইব্রেরির সুযোগ সুবিধা ও সমস্যা নিয়ে কথা বলেন।

পরিদর্শন শেষে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, শিক্ষার্থীদের জন্যই বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীদের যেকোনো ধরনের যৌক্তিক দাবি প্রশাসন নিঃসংকোচে পূরণ করবে। দশ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে .০২৪ শতাংশ উপস্থিতি ছিলো যা খুবই দুঃখজনক। এমনকি এদের মধ্যে লাইব্রেরি থেকে বই পড়ছে এমন শিক্ষার্থীর চেয়ে মোবাইলে গান শোনা ও ইন্টারনেট ব্যবহার করা কিংবা বাইরের ফটোকপি এনে পড়ছে এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেশী।

চার দফা দাবির অন্যান্য গুলো হলো ক্যাম্পাসের ক্যাফেটেরিয়া, ফুডকোর্ট ও টংগুলোতে স্বাস্থ্যসম্মত খাবারের ব্যবস্থা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল রাস্তা, মুক্তমঞ্চ, চেতনা’৭১, গোলচত্বরের আশপাশসহ সকল গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা। এ বিষয়ে শাবি ভিসি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যাপ্ত লাইটিংয়ের বিষয়ে কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে আমরা কাজ করছি।

বিস্তারিত

শাবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় আরেক শাবি ছাত্র গ্রেফতার

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত হলেন শাখা ছাত্রলীগকর্মী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ আবু সালমান এবং তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি আবু সাঈদ আকন্দের অনুসারী।

মঙ্গলবার রাত ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহপরাণ হল গেইট থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন জালালাবাদ থানার (ওসি) শফিকুল ইসলাম।

শাবি প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক জহীর উদ্দীন আহমদ জানান,২০ মার্চ সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি তারিকুল ইসলামের উপর আক্রমনের ঘটনায় দায়েকৃত মামলার অজ্ঞাত আসামী হিসেবে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে গত ২১ মার্চ একই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি সৈয়দ জুয়েমকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ২০ মার্চ রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের পার্শ্ববর্তী সাতকরা রেস্টুরেন্টে শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি আবু সাঈদ আকন্দ ও বহিষ্কৃত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের সাথে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তারিকুল ইসলামের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ ঘটনায় তারিকুল ইসলামের নিক্ষেপ করা গুলিতে আহত হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী এসএমআব্দুল্লাহ রনি।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার দুপুরে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবু সাঈদ আকন্দ ও সাজিদুল ইসলাম সবুজকে স্থায়ী বহিষ্কারসহ ছাত্রলীগের ১২ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

এছাড়া এ ঘটনায় বুধবার(২১ মার্চ) সন্ধ্যায় জালালাবাদ থানায় ১০ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ১০/১২ জনকে আসামি করে মামলা (নং-১৭) করা হয়।

মামলার আসামিরা হলেন- ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত কেন্দ্রীয় সদস্য আবু সাঈদ আকন্দ, বহিষ্কৃত সাজিদুল ইসলাম সবুজ, শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্বৃত সহ সভাপতি সৈয়দ জুয়েম, বহিষ্কৃত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম অন্তু, বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক দোলন আহমেদ, বহিষ্ককৃত উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র বর্মণ প্রমুখ।

বিস্তারিত

রাজপথে কাফনের কাপড় পরে প্রতিবাদ শাবি শিক্ষার্থীদের

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র মাহিদ আল সালাম হত্যার প্রতিবাদে কাফনের কাপড় পরে রাজপথে অবস্থান নিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা নগরীর চৌহাট্টায় রাস্তায় বসে, দাঁড়িয়ে ও শুয়ে অবস্থান নেন। এ সময় শ্লোগাণে শ্লাগাণে উত্তাল হয়ে ওঠে পুরো শহীদ মিনার ও আশপাশের এলাকা।

এর আগে সকাল ৯টায়  শাবি ক্যাম্পাসে জড়ো হতে থাকেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। ক্যাম্পাসে তারা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। এরপর পায়ে হেঁটে শাবি ক্যাম্পাসে থেকে শহীদ মিনার অভিমুখে পদযাত্রা শুরু করেন তারা।

শহীদ মিনার এলাকায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন কামরান, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।অবস্থান শেষে তারা স্থানীয় জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।
উল্লেখ্য, গত রবিবার রাতে দক্ষিণ সুরমার ক্বীনব্রীজ এলাকায় ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে শাবি ছাত্র মাহিদ নিহত হয়।


বিস্তারিত

শাহজালাল বিশববিদ্যালয়ের শাহপরান হলের দখল নিয়ে বিরোধ,ছাত্রলীগ কর্মীকে ছুরিকাঘাত

সিলেটের শাহজালাল বিশববিদ্যালয়ের শাহপরান হলের ৩২৫ নম্বর কক্ষের দখল নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের কথাকাটাকটির সময় দুই ছাত্রলীগ কর্মীকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। 

বেলা ৩ টার দিকে ছাত্রলীগের বিশববিদ্যালয়ের শাখার গন-শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রশিদ রাসেলের ৩২৫ নম্বর কক্ষ দখল করতে যায় সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান তার গ্রুপের কর্মীরা।

এ নিয়ে রাসেলের সঙ্গে জাহিদের সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে জাহিদ ও লিংকন নামের দুই জনকে ছুরিকাঘাত হয়।

এদিকে- গুরুতর আহত অবস্থায় জাহিদ হাসানকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তাকে অস্ত্রোপচারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আর লিংকনকে জরুরী বিভাগে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।






বিস্তারিত

শাবিতে ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মানববন্ধন ও সমাবেশ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টি টেকনোলোজি বিভাগের শিক্ষার্থী এস.এম. আব্দুল্লাহ রনি গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টি টেকনোলজি(এফ.ই.টি) সোসাইটি।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনের সড়কে ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট এর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন পরবর্তী সমাবেশে শিক্ষকদের বক্তব্যকালে ” এস.এম আব্দুল্লাহ রনির গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের শাস্তির দাবী করেন ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

 
এসময় উপস্থিত ছিলেন ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড.ইফতেখার আহমেদ, সহ- সভাপতি মোঃ মাইনুল ইসলাম, প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ড.মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, সহযোগী অধ্যাপক ড.ওয়াহিদুজ্জামান,সহযোগী অধ্যাপক বেলাল হোসেন সরকার, সহযোগী অধ্যাপক রাজিয়া সুলতানা চৌধুরিসহ অন্যান্য শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থী।

প্রসঙ্গত,২০ মার্চ মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের পার্শ্ববর্তী সাতকরা রেস্টুরেন্টে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আবু সাঈদ আকন্দ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের সঙ্গে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তারিকুল ইসলামের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় তারিকুল ইসলামের ছোড়া গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয় ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী এস.এম.আব্দুল্লাহ রনি।

বিস্তারিত

শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি গ্রেপ্তার

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সৈয়দ জুয়েমকে গ্রেপ্তার করেছে জালালাবাদ থানা পুলিশ।

জালালাবাদ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় তরিকুল ইসলামের করা মামলার প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার সামন থেকে বুধবার রাতে  সৈয়দ জুয়েমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সবুজ সাঈদসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে শাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি তারিকুল ইসলাম।

এ ঘটনায় ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে। শাহপরান হলের গেট আটকিয়ে দিয়ে ভেতরে অবস্থান নিয়েছে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের অনুসারীরা।

অপরদিকে শাহপরান হল গেটের বাইরে অবস্থান করছে কেন্দ্রীয় সদস্য আবু সাঈদ ও সাজিদুল ইসলামের অনুসারীরা। তাদেরকে বোঝানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ফিরে গেছেন প্রশাসনের বিভিন্ন দায়িত্বে থাকা শিক্ষকরা।

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার শাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আবু সাঈদ আকন্দ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের সঙ্গে সহসভাপতি তারিকুল ইসলামের অনুসারীর সংঘর্ষে এসএম আব্দুল্লাহ রনি নামক একজন সাধারণ শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হন।

পরে বুধবার দুপুরে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবু সাঈদ আকন্দ ও সাজিদুল ইসলাম সবুজকে স্থায়ী বহিষ্কারসহ শাখা ছাত্রলীগের ১২ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।
বিস্তারিত

শাবিতে সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা করলেন ছাত্রলীগ নেতা

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা দায়ের করেছেন এক গ্রুপের নেতা তারিকুল ইসলাম।

শাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তারিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ১০ জনের নাম উল্লেথ ও অজ্ঞাতনামা ১০ জনকে আসামী  করে বুধবার দুপুরে জালালাবাদ থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

জালালাবাদ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আসামীদের মধ্যে অন্যতম হলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য আবু সাঈদ আকন্দ, সাজিদুল ইসলাম সবুজ, শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ জুয়েম, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আশরাফুল আলম অন্তুু, সাংগঠনিক সম্পাদক দোলন আহমেদ, উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র বর্মণ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আবু সাঈদ আকন্দ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের সঙ্গে সহ-সভাপতি তারিকুল ইসলামের অনুসারীর সংঘর্ষে এসএম আব্দুল্লাহ রনি নামক একজন সাধারণ শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হন।

এদিকে বুধবার দুপুরে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবু সাঈদ আকন্দ ও সাজিদুল ইসলাম সবুজকে স্থায়ী বহিষ্কারসহ শাখা ছাত্রলীগের ১২ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

বিস্তারিত

শাবি ছাত্রলীগের ১২ নেতা-কর্মী বহিষ্কার

দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ১২ নেতা-কর্মীকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় সংসদ বহিষ্কৃতদের মধ্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য আবু সাঈদ আকন্দ ও সাজিদুল ইসলাম সবুজকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হয়েছে। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মঙ্গলবার রাতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনার পর তাদেরকে বহিস্কার করা হলো।

বুধবার দুপুরে  কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বহিষ্কৃত অন্যরা হলোঃ

শাবি শাখার সহ-সভাপতি সৈয়দ জুয়েম, যুগ্ম সধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম অন্তু, সাংগঠনিক সম্পাদক দোলন আহমেদ, উপ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক লক্ষণ চন্দ্র বর্মণ, সদস্য মুনকির কাজি, তৌফিকুর রহমান তন্ময়, বাসির মিয়া, কর্মী মেহের উদ্দিন  হিমেল, রায়হান আহমেদ, শরিফুল ইসলাম দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শাবি শাখা ছাত্রলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রচারসম্পাদক সাইফ উদ্দিন বলেন,  শাবিতে  সংঘর্ষের ঘটনায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে তাদেরকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কোন দুষ্কৃতকারীকে প্রশ্রয় দেয় না বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের পার্শ্ববর্তী সাতকরা রেস্টুরেন্টে সাঈদ-সবুজের অনুসারীদের বিরুদ্ধে তারিকুলের উপর হামলা এবং অন্যদিকে তারিকুলের বিরুদ্ধে সাঈদ-সবুজের অনুসারীদের গুলি করার অভিযোগ করে।এতে এস এম আব্দুল্লাহ রণি নামের এক শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হন।

বিস্তারিত

শাবিতে ছাত্রলীগ নেতার উপর প্রতিপক্ষের হামলা, আহত ১

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি তারিকুল ইসলামের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ভার্সিটি গেইটে সাতকরা রেস্টুরেন্টে এই ঘটনা ঘটে। এসময় আব্দুল্লাহ রনি নামে এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হন। তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার পায়ে গুলিবিদ্ধ বলে জানা গেছে। রনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টি টেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী।

এ ঘটনার পর শাবি ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে উক্তেজনা বিরাজ করছে।
 
এ ব্যাপারে জালালাবাদ থানার ওসি শফিকুর রহমান জানান হামলার বিষয়ে এখনো তারা কিছু জানেননা। তিনি খবর নিয়ে দেখবেন।
বিস্তারিত

‘তার জন্য আমার বিন্দুমাত্র রাগ নাই, মায়া ও করুণা আছে’

অধ্যাপক জাফর ইকবাল তার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেছেন, তোমরা দেখিয়েছ ম্যাচিউরড ছেলেমেয়ে হলে কী করতে হয়। এখানেই বসেছিলাম আমরা, যখন আমাকে আঘাত করা হয়েছিল। তার জন্য আমার বিন্দুমাত্র রাগ নাই। মায়া আছে, করুণা আছে। কেন এটা করেছে? বেহেশতে যাবে বলে। এটা তার মাথায় ঢুকানো হয়েছে। একজন মানুষ কত দুঃখী হতে পারে যার মনে হয়, একজনকে মেরে বেহেশতে যাবে। পৃথিবীতে তাকিয়ে দেখো। কী সুন্দর। এ সুন্দর পৃথিবীর কিছুই সে দেখে না, জানে না। কেবল জানে একজনকে মারলে বেহেশতে যাবো।’

বুধবার বিকালে সিলেটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদ্যিালয় ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন। ‘সাদাসিধে কথা’ শীর্ষক অনুষ্টানে তিনি শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘দেশের মানুষ, আমার প্রিয় ছাত্র-ছাত্রীরা আমাকে কতোটা ভালোবাসা দিয়েছে তা আমি ফিরিয়ে দিতে পারবোনা। আমি তাদেরকে আজীবন ভালোবাসবো। আমি জানিনা তোমাদের ভালোবাসার প্রতিদান দিবো।’ পাশাপাশি তিনি খোদার কাছে তিনি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন। তিনি বলেন- আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়েছেন। নিশ্চয় তিনি আমাকে দিয়ে ভালো কিছু করাতে চান।

তিনি আরো বলেন, ‘এখানেও একজন হয়তো আছে। যে ভাবছে, পারলাম না আরেকবার অ্যাটেম নিতে হবে। তার উদ্দেশে বলছি, আমার সঙ্গে কথা বলতে আসো। অস্ত্রটা বাসায় রেখে আসো। আমি শুনতে চাই, কেন তোমার এত কষ্ট।’

জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমাকে নাস্তিক বলো? আমি কোরআন শরিফ শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত নিখুতঁভাবে পড়েছি। সেখানে একটি আয়াত আছে, তুমি যদি একজনকে মারো, তুমি সারা মানবজাতিকে হত্যা করছো। কেমন করে তারা এত বড় দায়িত্ব ঘাড়ে নেয়। কে তোমাদের এসব বুঝিয়েছে। যারা বুঝিয়েছে তারা নিশ্চিন্তে আছে। আর তুমি, যে কিনা রিমাণ্ডে আছো, তোমার মা, ভাই, বাবা রিমাণ্ডে। যারা এসব কথা বলো, তারা আসো আমার সঙ্গে কথা বলো।’

এসময় তিনি পবিত্র কোরআনের আয়াতের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন- ‘তুমি যদি একটা মানুষকে হত্যা করো তবে সমগ্র মানবজাতিকে হত্যা করলে। কোরআন শরিফে আছে। যারা তোমাকে বুঝাচ্ছে তারা বিভ্রান্ত করছে। তোমরা একটা মানবজাতিকে যদি বাঁচাও তারা সমগ্র মানবজাতিকে বাঁচিয়েছো। যারা আমাকে এখান থেকে তুলে হাসপাতালে পাঠিয়েছো। তারা সমগ্র মানবজাতিকে বাঁচিয়েছো। আমি তোমাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি সিএমএইচ এর চিকিৎসকের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। যারা বিভ্রান্তির পথে রয়েছো তারা আসো আমরা সামনা সামনি কথা বলবো। তোমাদের বিভ্রান্তি দূর করা প্রয়োজন।’

অনুষ্ঠানে বিমানবন্দরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ এবং জাফর ইকবালের স্ত্রী ড. ইয়াসমিন হক বক্তব্য রাখেন।

এর আগে বেলা ১২টা ৪৫ মিনিটে নভো-এয়ারের একটি ফ্লাইটে ঢাকা থেকে সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। পরে ১২টা ৫৮ মিনিটে ভিআইপি গ্রাউন্ড দিয়ে বের হয়ে সহকর্মী ও সাংবাদিকদের সঙ্গে তিনি কথা বলেন।

এ সময় তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাসসহ তার সহকর্মী, শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন স্তরের মানুষ স্বাগত জানান।

তার আগমন উপলক্ষে ক্যাম্পাসের ভেতরে কঠোর নিরপত্তা এবং বিভিন্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয় বলে জানিয়েছেন জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম।

তিনি জানান, নিরাপত্তা আগের চেয়ে জোরদার করা হয়েছে। অফিস, বাসা, এমনকি তিনি যেখানে যাবেন পুলিশ সঙ্গে আছে। ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদারে ৫১ জন পুলিশ নিয়োজিত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৩ মার্চ সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একটি অনুষ্ঠান চলাকালে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায় ফয়জুল হাসান নামে এক তরুণ। তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অস্ত্রোপচার শেষে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই তাকে এয়ারঅ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা সিএমএইচে স্থানান্তর করা হয়।

বিস্তারিত

তখনো ভয় পাইনি, এখনো না: জাফর ইকবাল

আমি বোকা টাইপের মানুষ। আমার মধ্যে ভয়-ভীতি কাজ করে না। আমাকে আঘাতের সময়ও ভয় পাইনি, এখনো পাই না। ভবিষ্যতেও পাব না।

বলেছেন সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমইএইচ) চিকিৎসা শেষে সিলেটে যাওয়ার প্রাক্কালে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় পাশে ছিলেন তার স্ত্রী একই বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ইয়াসমিন হক।

জাফর ইকবাল আরও বলেন, আমার শারীরিক অবস্থা এখন ভালো। কোনো অসুবিধা নেই। ডাক্তার আমাকে ১৮ তারিখে দেখা করতে বলেছেন। কয়েকটা সেলাই আছে মাথায়। সেলাই ঢেকে রাখার জন্য বাচ্চাদের মতো টুপি পড়েছি। হাত পুরোপুরি ভালো না হওয়ায় এখনও ব্যান্ডেজ খোলা হয়নি।

সিলেটে গিয়ে প্রথম কর্মসূচির জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, মুক্তমঞ্চে যে জায়গায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছিলাম সেখানেই আমার শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলবো।

তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে তার বক্তব্য কি জানতে চাইলে জাফর ইকবাল বলেন, বাংলাদেশ একটি সুন্দর দেশ। তোমরা দেশকে ভালোবাস। দেশ তোমাদের ভালোবাসবে।

গত ৩ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে এক অনুষ্ঠানে ছুরিকাঘাতে তিনি আহত হন। সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাকে রাজধানীর সিএমএইচে আনা হয়। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

১৯৯৪ সালের ৪ ডিসেম্বর মুহম্মদ জাফর ইকবাল শাবিপ্রবিতে সিএসই বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন। তারপর থেকে তিনি এ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করছেন।

এদিকে, জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারী ফয়জুলের বড় ভাই এনামুল ও তার বাবা মাওলানা আতিকুর রহমান, মা মিনারা বেগম এবং মামা ফজলুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।
বিস্তারিত

প্রিয় ক্যাম্পাসে ফিরছেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রিয় ক্যাম্পাসে আগামীকাল বুধবার ফিরে যাচ্ছেন লেখক শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল ।

রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ১১দিন চিকিৎসা শেষে তার প্রিয় শাবি ক্যাম্পাসে ফিরছেন।

ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ব্যক্তিগত সহকারী জয়নাল আবেদীন মঙ্গলবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‌ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে নভোএয়ারের একটি ফ্লাইটে সিলেটে যাবেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল।দুপুর দেড়টার দিকে ক্যাম্পাসে যাবেন এবং বিকেল ৪টায় হামলার স্থান মুক্তমঞ্চে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলবেন।

এদিকে, মুহম্মদ জাফর ইকবালের প্রত্যাবর্তনকে কেন্দ্র করে ‘বরণ অনুষ্ঠানের’ প্রস্তুতি নিচ্ছে শাবির আইআইসিটি পরিবার ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়ক রিফাত হায়দার জানান,  জাফর ইকবালকে তারা ক্যাম্পাসে স্বাগত জানানোর পরিকল্পনা করছেন। তবে এখনও কোনো কর্মসূচি চূড়ান্ত হয়নি।


গত ৩ মার্চ শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে এক অনুষ্ঠানে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা করে উগ্রবাদী এক যুবক। হামলার পর গুরুতর আহত অবস্থায় ড. জাফর ইকবালকে প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) আনা হয়। এখানেই ১০ দিন ধরে চিকিৎসা চলে তার।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বাদী হয়ে নগরীর জালালাবাদ থানায় মামলা দায়ের করে । এ মামলায় ফয়জুলকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ। এরপর একে একে অভিযান চালিয়ে ফয়জুলের বাবা হাফিজ আতিকুল ইসলাম, মা মিনারা বেগম, ভাই এনামুল হাসান, মামা ফজলুর রহমান, শাবিপ্রবি গ্রন্থাগারের নিরাপত্তা প্রহরী খালেকুজ্জামান, বাইসাইকেল কারিগর জাহিদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।
বিস্তারিত

  • ‘মৃত শিশুর মাতৃত্ব নিয়ে সন্দেহ’ তদন্ত কমিটি গঠন
  • শুটিং না করেও টিজারে মুনমুন, পরিচালক বলছেন ভিন্ন কথা
  • বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলবেন সাকিব-তামিম
  • বিয়ানীবাজারে জেনোসিডিল সহ যুবক আটক
  • বজ্রপাতের সময়ে যেসব বিষয়ে সতর্ক থাকতে হয়
  • এবার গোপালগঞ্জে বাসচাপায় এক নারী নিহত
  • সিকৃবিতে ‘সেলফ এসেসমেন্ট’ কমিটির কর্মশালা অনুষ্ঠিত
  • প্রভাষক জুয়েল হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন
  • সিলেটে মশা নিধনে কার্যকর পদক্ষেপের দাবি
  • রাজনগরে গৃহবধূ খুন
  • বাংলাদেশ লোকসংস্কৃতি ফোরাম এর সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি অসিত বরণ
  • ধোপাদিঘীর ‘ক্ষতি নয়,সৌন্দর্যবর্ধন করছে’ সিসিক
  • সিলেট চেম্বারে এসএমই উদ্যোক্তাদের ব্যবসা বিকাশে ই-কমার্স শীর্ষক সেমিনার
  • সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক
  • শাবিতে আসছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান
  • কাবুলে জঙ্গি হামলা, নিহত বেড়ে ৬৩
  • পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে তারেকের লিগ্যাল নোটিশ
  • বিএনপির মিছিলে পুলিশি বাধা
  • জাতীয় পার্টিতে বিএনপির অনেক নেতাই যোগ দেবে: এরশাদ
  • সংবাদ সম্মেলনে রিজভী তারেক রহমান পাসপোর্ট জমা দিলে সবাইকে দেখান
  • মুসলমানরাই সবচেয়ে বেশি সন্ত্রাসের শিকার: বান কি মুন   ৫০৬৯৯
  • ছলনাময়ী নারীদের চেনার উপায়   ১৪৮৯১
  • মেয়র কালামের পায়ের নিচে ওসি আতাউর শার্ট খুলে লিনডাউন,তারপর জুতো পেটার প্রস্তাব   ১৪৭৯৯
  • জুমার নামাজ ছুটে গেলে কী করবেন?   ১৩৪৪৮
  • ​চিনা কোম্পানিকে কাজ দিতে প্রতিমন্ত্রী তারানার স্বাক্ষর জাল   ৯৪৩০
  • জেনে নিন ছুলি দূর করতে কিছু ঘরোয়া উপায়   ৯৩৪২
  • মুসাফির কাকে বলে? মুসাফিরের রোযা ভঙ্গ করলে   ৮৯৩৩
  • ডিমের পর স্বয়ংসম্পূর্ণতার পথে সোনালি মুরগি   ৮৭৭১
  • গরুর দুধের অসাধারণ কয়েকটি গুণ   ৮৪৭৯
  • ঋণখেলাপি নই-হুন্ডি ব্যবসায়িও নই,সম্পত্তি নিলামের খবর অপপ্রচার-নাসির   ৮৪৬০
  • খতমে ইউনুস নামে সামাজে চলে আসা জালিয়াতী   ৭৮৭২
  • মুঘল সম্রাটদের দিনযাপন   ৭০১৮
  • হযরত শাহ্‌ জালাল ইয়েমেনী (রাঃ)-এঁর সংক্ষিপ্ত জীবনী   ৬৪৫৯
  • চিত্রনায়িকা সাহারার সেক্স ভিডিও ফাঁস!   ৬৪২৪
  • ম,আ,মুক্তাদিরের ছেলে রাহাত লন্ডনে এক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে   ৬৪১০
  • শিশুর কানে আজান দেবে কে?   ৬২৮০
  • প্রশ্নব্যাংকে প্রশ্ন, স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাছাই হয়ে পরীক্ষা   ৫৭৪১
  • কামরূপ-কামাখ্যা : নারী শাসিত যাদুর ভূ-খন্ড   ৫৭৩২
  • ফুলবাড়ির বশর চেীধুরী আজ ইন্তেকাল করেছেন   ৫৬৪৯
  • চিকিৎসায় দ্রুত সরকারি সহযোগিতা চান খাদিজার বাবা মাসুক মিয়া   ৫৪১৯
  • সাম্প্রতিক আরো খবর

  • সিকৃবিতে ‘সেলফ এসেসমেন্ট’ কমিটির কর্মশালা অনুষ্ঠিত
  • স্থগিত হওয়া এইচএসসির ভূগোল দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা ১৪ মে
  • শাবিতে বিভাগীয় প্রধান কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্ছনার অভিযোগ
  • পহেলা বৈশাখে শাবির ৩২০ একর
  • শাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি
  • ছাত্রলীগের প্রতি সতর্ক আহবান অধ্যাপক জাফর ইকবালের
  • শাবিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্রধান ফটকে অবস্থান
  • কোটা সংস্কারের পক্ষে শাবি উপাচার্য
  • ঢাবি শিক্ষার্থীদের হুমকির অভিযোগে শাবিতে প্রতিবাদ
  • ঢাবি ভিসির বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ
  • কোটা সংস্কারের দাবিতে শাবির প্রধান ফটকে শিক্ষার্থীদের অবস্থান
  • ১২ ঘন্টা পর পুনরুদ্ধার শাবির ওয়েবসাইট
  • শাবির ওয়েবসাইট হ্যাকড
  • লাইব্রেরি পরিদর্শনে গিয়ে ২৪ শিক্ষার্থীকে পেলেন শাবি উপাচার্য
  • শাবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় আরেক শাবি ছাত্র গ্রেফতার
  • রাজপথে কাফনের কাপড় পরে প্রতিবাদ শাবি শিক্ষার্থীদের
  • শাহজালাল বিশববিদ্যালয়ের শাহপরান হলের দখল নিয়ে বিরোধ,ছাত্রলীগ কর্মীকে ছুরিকাঘাত
  • শাবিতে ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মানববন্ধন ও সমাবেশ
  • শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি গ্রেপ্তার
  • শাবিতে সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা করলেন ছাত্রলীগ নেতা
  • শাবি ছাত্রলীগের ১২ নেতা-কর্মী বহিষ্কার
  • শাবিতে ছাত্রলীগ নেতার উপর প্রতিপক্ষের হামলা, আহত ১
  • ‘তার জন্য আমার বিন্দুমাত্র রাগ নাই, মায়া ও করুণা আছে’
  • তখনো ভয় পাইনি, এখনো না: জাফর ইকবাল
  • প্রিয় ক্যাম্পাসে ফিরছেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল