সর্বশেষ খবর

   ‘শক্তিশালী পাসপোর্ট'    ‘পুরাতন কারাগারের জায়গায় মডেল মসজিদ নির্মাণের দাবি’    সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের ৩০ সদস্যের কমিটি অনুমোদন    শাবিতে কর্মশালা অনুষ্ঠিত    বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস আজ    গোলাপগঞ্জে টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী    বিডি জবসের প্রধান নির্বাহী আটক    ভারতে ১৯ নারীসহ ৩৭ মাওবাদী নিহত    বিশ্বনাথ আ’লীগ সভাপতি পংকি খান জেলে    হবিগঞ্জ শহরে জুয়ার আসরে পুলিশের হানা, আটক ১৫    সুস্থ জীবন যাপন করতে হলে খাদ্যের পুষ্টি জ্ঞান থাকা জরুরী: মেয়র আরিফ    খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবি সিলেট বিএনপি’র    বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা    মশা নিধনের দাবিতে রাজপথে মশারি মিছিল    ইরান পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে নতুন চুক্তির ইঙ্গিত    তৃতীয় স্ত্রীকে নিয়ে ঝামেলায় ইমরান খান    ভারতে সেই ধর্মীয় গুরু ধর্ষণে দোষী সাব্যস্ত    সাংবাদিককে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে মানববন্ধন    কানাডা, আমেরিকায় ‘স্বপ্নজাল’    এখনও টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখেন মাশরাফি, তবে....


অর্থনীতি

নির্বাচনী বছরে বাজেটে নতুন উদ্যোগ নয় : অর্থমন্ত্রী

সিলেট বার্তা, ২০১৮-০৪-১৩ ১২:৩০:১৮

নির্বাচনী বছরে বাজেট প্রণয়নের  ক্ষেত্রে নতুন কোনো উদ্যোগ নেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের পারমর্শক কমিটির ৩৯তম সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিতত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলামসহ এনবিআরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং এফবিসিসিআইয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান নেতারা।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এবার নির্বাচনী বছর। নির্বাচনী বছরে নতুন উদ্যোগ নেওয়া যায় না। পুরাতন ইস্যুতে কাজ করতে হয়। আগের নেওয়া উদ্যোগগুলো বাস্তবায়নই মূল উদ্দেশ্য থাকবে’।

অর্থমন্ত্রী বলেন, এখন অ্যাগ্রোপ্রসেসিং (কৃষি প্রক্রিয়াজাত) শিল্প ভালো হচ্ছে। সরকার এ খাতকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। আগামী বাজেটেও এটা অব্যাহত থাকবে।  এছাড়া কৃষি যন্ত্রপাতি আমদানিতে সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে। সরাসরি রপ্তানির ক্ষেত্রে নগদ সহায়তা (ক্যাশ ইনসেটিভ) দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, গত ১০ বছরে এনবিআরের অনেক পরির্বতন হয়েছে। এখন কর দাতারা আগের মত হয়রানির শিকার হচ্ছে না। এর ফলে এখন ৩০ লাখের ওপরে করদাতা ছাড়িয়েছে।

আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে করমুক্ত আয় সীমা বাড়ানো, করপোরেট কর হার কমানোর দাবি করেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন (এফবিসিসিআই)।

এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন সার্বিকভাবে আমদানি শুল্ক ও  মুসক সম্পর্তি লিখিত বেশকিছু প্রস্তাব করেন। এর মধ্যে রয়েছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে ব্যক্তিগত করমুক্ত আয়ের সীমা সাড়ে ৩ লাখ টাকা, করপোরেট কর ২ দশমকি ৫ শতাংশ কমিয়ে সব কোম্পানির করের হার নির্ধারণ করা। ব্যক্তিগত করদাতার প্রদর্শিত নিট পরিসম্পদের ভিত্তিতে সারচার্জের শূন্য শতাংশের সিমা ৩ কোটি টাকায় বাড়ানোর প্রস্তাব করেন।  এছাড়াও দ্বৈত করে নীতি বাতিলের দাবি করা হয়। রপ্তানির ক্ষেত্রে তৈরি পোশাকের সব পণ্যে ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি করেন। দেশীয় শিল্পের মৌলিক কাঁচামাল এবং রসায়নিক জাতীয় পণ্যের ক্ষেত্রে ৫ শতাংশের পরিবর্তে ৩ শতাংশ শুল্ক স্তর নির্ধারনের প্রস্তাব করা হয়।

অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে আয়োজন করেছে এনবিআর ও এফবিসিসিআই।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন