সর্বশেষ খবর

   বালাগঞ্জে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন    স্বাভাবিক জীবনে ফিরল সুন্দরবনের ৫৭ দস্যু    শুক্রবার কলকাতা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী    মাদকবিরোধী অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত    নবীগঞ্জ পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র হলেন এটিএম সালাম    ঈদে ৪ দিন সিএনজি স্টেশন ২৪ ঘণ্টা খোলা    সারা দেশে বন্দুকযুদ্ধ : মানবাধিকার কমিশনের উদ্বেগ    শিল্প প্রবৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে দেশি বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে হবে: রাষ্ট্রপতি    ছিটকে পড়লেন রোমেরো    বিরল রোগ আক্রান্ত মুক্তামনি আর নেই    বালাগঞ্জে ভেজাল বিরোধী অভিযান    র‍্যাবের খাঁচায় সিলেটের ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ সুধাংশু    বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষে সিলেটে আলোচনা সভা    জিন্দাবাজারে রিফাত এন্ড কোং’এ ২০ হাজার টাকা জরিমানা    মৌলভীবাজারে দুই ছাত্রলীগ কর্মী খুনের মামলার প্রধান আসামির আত্মসমর্পণ    সহকর্মীকে ‘হ্যান্ডসাম’ বলায় চাকরি হারালেন সংবাদ উপস্থাপিকা    প্রতিটি পোস্টে নজর রাখছে ১৫ হাজার ‘ফেসবুক পুলিশ’    মন্ত্রী-সচিবদের কেউ কেউ ফোন-ফ্যাক্সের দোকান খুলে বসতে পারেন: পার্থ    মিশিগান বিএনপির উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত    সাকিবদের হারিয়ে ফাইনালে চেন্নাই


আন্তর্জাতিক

মুসলমানরাই সবচেয়ে বেশি সন্ত্রাসের শিকার: বান কি মুন

সিলেট বার্তা, ২০১৬-০৪-১১ ২০:২০:১৬

জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন বিশজুড়ে সহিংস ঘটনাবলীতে মুসলমানদের ব্যাপকভাবে ভিকটিম হওয়ার কথা উল্লেখ করে বলেন, এক্ষেত্রে আমাদের ঐক্যের  আহবান ও দাবি দেউলিয়াত্বের কথাই স্মরণ করিয়ে দেয়।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে গত জানুয়ারিতে প্রদত্ত প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে মুন বলেন, এ প্রস্তাবের আলোকে অগ্রবর্তী হলে বিশ্ব অংশীদারিত্বের মাধ্যমে সহিংসতা নির্মূল সম্ভব।

দায়েশ (আইএস) বোকো হারাম দমনে সাফল্য নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে মুন বলেন, কোন ধর্ম, কোন এলাকা, বিশেষ কোন জাতীয়তাবাদী চেতনা কিংবা  জাতিগত সম্প্রদায়কে সহিংসতার জন্য দায়ী করা অনুচিত।

সুইজারল্যান্ড সরকারের সাথে যৌথভাবে আয়োজিত ব্যাপক সহিংসতা দমন শীর্ষক সম্মেলনে মুন বলেন, চলুন আজ স্বীকৃতি দেই যে, বিশ্বব্যাপী আজ মুসলমানরাই অধিক পরিমাণে সহিংসতার শিকার হচ্ছেন। সন্ত্রাসীরা সমাজ কাঠামোকে ভেঙ্গে দিচ্ছে এবং তাদের মূখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে ভয়ের শাসন কায়েম করা।

সম্মেলনের প্রতিপাদ্য সফল ও সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি চলমান দেউলিয়া ও অন্তঃসারশূণ্য কৌশল পরিত্যাগের আহবান জানান। সন্ত্রাসীরা  জাতিসংঘ প্রণীত সনদের বিরুদ্ধে সরাসরি ঝুঁকি। বিশ্ব মানবাধিকার সনদ তারা লঙ্ঘন করে চলেছে। বিশ্ব সমাজের শান্তি ও নিরাপত্তার উদ্যোগকে তারা নস্যাৎ করে চলেছে। টেকসই উন্নয়নকে তারা বাধাগ্রস্ত করছে। বান কি মুন সন্ত্রাসী কার্যক্রমকে বিশ্বের জন্য চরমতম হুমকি উল্লেখ করে তার প্রদর্শিত পথে চলার আহবান জানান।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন