সর্বশেষ খবর

   বানিয়াচংয়ে মাড়াইয়ের মেশিনের আঘাতে কৃষকের মৃত্যু    বানিয়াচংয়ে মাড়াইয়ের মেশিনের আঘাতে কৃষকের মৃত্যু    বালাগঞ্জে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন    স্বাভাবিক জীবনে ফিরল সুন্দরবনের ৫৭ দস্যু    শুক্রবার কলকাতা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী    মাদকবিরোধী অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত    নবীগঞ্জ পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র হলেন এটিএম সালাম    ঈদে ৪ দিন সিএনজি স্টেশন ২৪ ঘণ্টা খোলা    সারা দেশে বন্দুকযুদ্ধ : মানবাধিকার কমিশনের উদ্বেগ    শিল্প প্রবৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে দেশি বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে হবে: রাষ্ট্রপতি    ছিটকে পড়লেন রোমেরো    বিরল রোগ আক্রান্ত মুক্তামনি আর নেই    বালাগঞ্জে ভেজাল বিরোধী অভিযান    র‍্যাবের খাঁচায় সিলেটের ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ সুধাংশু    বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষে সিলেটে আলোচনা সভা    জিন্দাবাজারে রিফাত এন্ড কোং’এ ২০ হাজার টাকা জরিমানা    মৌলভীবাজারে দুই ছাত্রলীগ কর্মী খুনের মামলার প্রধান আসামির আত্মসমর্পণ    সহকর্মীকে ‘হ্যান্ডসাম’ বলায় চাকরি হারালেন সংবাদ উপস্থাপিকা    প্রতিটি পোস্টে নজর রাখছে ১৫ হাজার ‘ফেসবুক পুলিশ’    মন্ত্রী-সচিবদের কেউ কেউ ফোন-ফ্যাক্সের দোকান খুলে বসতে পারেন: পার্থ


আন্তর্জাতিক

‘রাখাইনে নিহত ১০ রোহিঙ্গা বিদ্রোহী ছিল না’

সিলেট বার্তা, ২০১৮-০১-১৩ ১৫:০১:০০

মিয়ানমার রাখাইন রাজ্যের একটি গণকবর থেকে পাওয়া ১০ রোহিঙ্গার লাশ বেসামরিক নাগরিকের বলে দাবি করেছে আরকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা)। শনিবার টুইটারে দেওয়া এক বিবৃতিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহী গোষ্ঠীটি এ দাবি করেছে।

গত ১৮ ডিসেম্বর মিয়ানমার সেনাবাহিনী রাখাইনের রাজধানী সিতউই থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার উত্তরে উপকূলীয় ইন দীন গ্রামে একটি গণকবরে ১০ জনের মৃতদেহ পাওয়ার কথা জানায়। এরপর ঘটনা তদন্তে একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকে নিয়োগ করে সেনাবাহিনী। বুধবার মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের ফেইসবুক পেজে ওই রোহিঙ্গাদের বিদ্রোহী দাবি করে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা তাদেরকে হত্যা করেছে বলে তদন্তে জানা গেছে এবং এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রাখাইনে রোহিঙ্গা নিধন অভিযান শুরুর পর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ভুল স্বীকার রীতিমতো বিরল ঘটনা।
শনিবার আরসা বলেছে, ‘আমরা ঘোষনা দিচ্ছি, যে ১০ নিরাপরাধ বেসামরিক নাগরিকের মৃতদেহ ইন দীন গ্রামের গণকবরে পাওয়া গেছে তারা আরসার সদস্য নয়, তাদের সঙ্গে আরসার কোনো সংশ্লিষ্টতাও নেই।’
পর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ভুল স্বীকারকে স্বাগত জানিয়ে আরসা বলেছে,  ‘বার্মার সন্ত্রাসী সেনাবাহিনী যুদ্ধাপরাধের যে স্বীকারোক্তি দিয়েছে তাকে আমরা অভিনন্দন জানাচ্ছি।’

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন