সর্বশেষ খবর

   হাথুরুসিংহের পরিকল্পনা ভুলে গেছে বাংলাদেশ: মাশরাফি    নতুন সম্পর্কে জোলি!    মাটির লেয়ারের ভিন্নতায় পদ্মা সেতুর ১৪ পাইলের ডিজাইনে বিলম্ব    ব্যাংকিং খাতে জবাবদিহিতার জন্য পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে : অর্থমন্ত্রী    অবকাঠামো উন্নয়নে ৬০ মিলিয়ন ডলার দেবে ওএফআইডি    বাংলাদেশ যথেষ্ট সক্ষমতা অর্জন করেছে : বিশ্বব্যাংক    ৩৭ হজ এজেন্সিকে নোটিশ    বাজেটে এমপিও অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিবে: প্রধানমন্ত্রী    ভোলাগঞ্জ ও কালাইরাগে ৩৬টি ‘বোমা মেশিন’ ধ্বংস    ফেঞ্চুগঞ্জে ছাত্রলীগের ৫ নেতা বহিষ্কার    আম্মার মতো আমিও হারিয়ে যাব : রাইমা    ‘সূর্যসেন’ নতুন মঞ্চনাটক    আমি মৃত্যুকে ভয় করি না: আইভী    আমি একাই যথেষ্ট: শামীম ওসমান    সিরিয়ার কুর্দিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবেন এরদোয়ান    বড় ধরনের বিপদ থেকে বাচঁলেন শোয়েব!    কোহলির জরিমানা    নির্বাচন স্থগিত হওয়া ইসির চরম ব্যর্থতা: ফখরুল    ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন স্থগিত    রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু ২ বছরের মধ্যে


জীবনধারা

শীতকালে বিয়ে? চুলের খেয়াল রাখুন

সিলেট বার্তা, ২০১৭-১২-১২ ০২:৪৪:৫৩

শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা - সারাবছরই মানুষ চুল নিয়ে নাজেহাল। গ্রীষ্ম ও বর্ষার সমস্যাগুলি থেকে মুক্তি মিললেও সামনেই আসছে শীত। তাই, ঋতু অনুযায়ী চুলের সমস্যার ধরনও বদলাবে। অন্যবার এই সব সমস্যা আর সমাধান নিয়ে ভাবতে ভাবতেই শীতকাল কেটে যায়। কিন্তু, এবার তো শীতকালেই বিয়ে। আর বিয়ের আগের ক’টাদিন চুলের যত্ন যে নিতেই হবে। শীতকালের মূল সমস্যা হল আর্দ্রতার অভাব।

আর্দ্রতার অভাবে চুলে আসে শুষ্কভাব। যার ফলে চুল ভঙ্গুর হয়ে যায়। দেখা দেয় চুল পড়া ও নিষ্প্রাণ হয়ে যাওয়ার সমস্যা। তাছাড়াও, চুলে সহজেই জট পড়ে। চুলের ফুরফুরে ভাব নষ্ট হয়ে যায়। জেনে নিন, কীভাবে এসময় চুলের খেয়াল রাখলে এই ধরনের সমস্যাগুলি এড়ানো সম্ভব-

প্রতিদিন চুল ধুতে হবে। চুল কোনওদিন গরম জল দিয়ে ধোবেন না, ব্যবহার করতে পারেন হালকা গরম বা ঠান্ডা জল। চুলের ধরন অনুযায়ী শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার বাছুন। প্রতিদিন শ্যাম্পু করার পর চুলে কন্ডিশনার লাগান। আর মাথায় রাখবেন, শ্যাম্পুর লাগান মাথার ত্বকে, কিন্তু, কন্ডিশনার লাগান চুলের আগায় (কিছু কন্ডিশনার মাথার ত্বকেও লাগানো যায়, বোতলের গায়ে লেখা পদ্ধতি অনুসরণ করুন)।
কন্ডিশনিং করলেই হবে না, মাঝেমাঝে চুলের প্রয়োজন ডিপ কন্ডিশনিং। রোজ যেমন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নেন, তেমনই করুন। তুল থেকে পুরো শ্যাম্পু ধুয়ে ফেলার পর টাওয়েল দিয়ে চুলে থাকা বাড়তি জল ঝেড়ে ফেলুন। এবার কিছুটা কন্ডিশনার নিয়ে চুলের গোড়া থেকে ডগা পর্যন্ত ভালো করে লাগিয়ে নিন। বড় দাঁড়া এবং মাঝে কিছুটা ফাঁকা এমন চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে নিন। এভাবে আঁচড়ালে চুলের সব অংশে কন্ডিশনার পৌঁছোবে। পুরো চুল একসঙ্গে করে নিয়ে শাওয়ার ক্যাপ পড়ে নিন। অন্তত ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।


প্রতিদিন অবশ্যই চুলের জট ছাড়াতে হবে। কিন্তু, ভেজা অবস্থায় জট ছাড়াবেন না। এসময় চুলের গোড়া নরম থাকায় বেশি চুল ওঠার সম্ভাবনা থাকে। চুল শুকিয়ে নিয়ে উপর থেকে সামান্য জল ছড়িয়ে বড় দাঁড়ার চিরুনি দিয়ে আস্তে আস্তে গোড়া থেকে ডগা পর্যন্ত আঁচড়ে নিন। কাঠের চিরুনি ব্যবহার করুন।  
এই কয়েকটা দিন চুলে কোনওরকমভাবে তাপ দেবেন না। হেয়ার ড্রায়ার বা কোনও হেয়ার স্টাইলিং কিট ব্যবহার করবেন না। আর যদি একান্তই ব্যবহার করতে হয়, আগে পুরো চুলে হেয়ার সিরাম লাগিয়ে নিন। তাপ থেকে এই হেয়ার সিরাম কিছুটা হলেও চুলকে বাঁচাবে।
মাসে অন্তত একবার স্যালোঁতে যান। আপনার চুলের জন্য উপকারি কোনও একটি হেয়ার স্পা করিয়ে নিন। ডগা চেরা বা শুষ্ক চুলের সমস্যা থেকে বাঁচতে মাঝেমাঝে চুলের নিচের অংশটি ট্রিম করে নিন।
শ্যাম্পু করার আগের রাতে চুলের গোড়ায় হালকা গরম তেল ম্যাসাজ করুন। ওই তেল লাগান বাকি চুলেও। আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করুন। পরদিন সকালে শ্যাম্পু করে নিন। চুল ভালো করে শুকিয়ে তবেই আঁচড়াবেন।
 

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন