সর্বশেষ খবর

   হাথুরুসিংহের পরিকল্পনা ভুলে গেছে বাংলাদেশ: মাশরাফি    নতুন সম্পর্কে জোলি!    মাটির লেয়ারের ভিন্নতায় পদ্মা সেতুর ১৪ পাইলের ডিজাইনে বিলম্ব    ব্যাংকিং খাতে জবাবদিহিতার জন্য পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে : অর্থমন্ত্রী    অবকাঠামো উন্নয়নে ৬০ মিলিয়ন ডলার দেবে ওএফআইডি    বাংলাদেশ যথেষ্ট সক্ষমতা অর্জন করেছে : বিশ্বব্যাংক    ৩৭ হজ এজেন্সিকে নোটিশ    বাজেটে এমপিও অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিবে: প্রধানমন্ত্রী    ভোলাগঞ্জ ও কালাইরাগে ৩৬টি ‘বোমা মেশিন’ ধ্বংস    ফেঞ্চুগঞ্জে ছাত্রলীগের ৫ নেতা বহিষ্কার    আম্মার মতো আমিও হারিয়ে যাব : রাইমা    ‘সূর্যসেন’ নতুন মঞ্চনাটক    আমি মৃত্যুকে ভয় করি না: আইভী    আমি একাই যথেষ্ট: শামীম ওসমান    সিরিয়ার কুর্দিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবেন এরদোয়ান    বড় ধরনের বিপদ থেকে বাচঁলেন শোয়েব!    কোহলির জরিমানা    নির্বাচন স্থগিত হওয়া ইসির চরম ব্যর্থতা: ফখরুল    ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন স্থগিত    রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু ২ বছরের মধ্যে


জীবনধারা

শীতকালে সুস্থ থাকতে স্নান করুন ঠান্ডা জলে

সিলেট বার্তা, ২০১৭-১২-২৩ ০১:৩৭:০৯

শীতকালে স্নান করাটাই যেন একটা বড় চ্যালেঞ্জের বিষয়। জল দেখলেই কেমন যেন বুক ধুকপুক করতে থাকে। অনেকে আবার শাওয়ার চালিয়ে তার তলায় দাঁড়াবেন কি না সেই চিন্তাই করতে থাকেন। আর যদি সকালে স্নান করতে হয় তাহলে তো কোনও কথাই নেই। ঘুম থেকে উঠেই যেন কান্না পায়। এই কষ্টের হাত থেকে বাঁচতে অনেকেই গরম জলে স্নান করেন। তবে যতই আরাম হোক না কেন, শীতকালে ঠান্ডা জলে স্নান করাই সবথেকে ভালো।

কেন জেনে নিন...

ত্বকের জন্য ভালো
গরম জল ত্বকের জন্য একেবারেই ভালো না। শীতকালে এমনিতেই ত্বক ও চুল রুক্ষ হয়ে যায়। আর ঠান্ডার হাত থেকে বাঁচতে অনেকেই গরম জলে স্নান করেন। কিন্তু, গরম জল ত্বক ও চুলকে আরও রুক্ষ করে তোলে। তাই নিজের চুল ও ত্বকের কথা চিন্তা করে ঠান্ডা জলে স্নান করাই ভালো।  
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে

•    রক্তে শ্বেত কণিকা বাড়াতে সাহায্য করে ঠান্ডা জল। ঠান্ডা জলে স্নান করার ফলে ত্বকও ঠান্ডা হয়ে পড়ে। ফলে তা গরম করার জন্য ত্বক নিজেই তাপ উৎপাদন করতে শুরু করে। এই তাপ উৎপাদনের সময় শ্বেত রক্ত কণিকা জন্মাতে থাকে। যা রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। এই সময় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা না বাড়লে সর্দি, কাশির মতো সমস্যা দেখা যায়।  মাসেলের ব্যথা কমায়

•    ঠান্ডায় ব্যথা যেন একটু বেড়ে যায়। ঠুক করে কোথাও লাগলেই ব্যথা করে। এছাড়া মাসেল পেন তো খুব স্বাভাবিক বিষয়। আর এই সমস্যার হাত থেকে বাঁচতে অবশ্যই ঠান্ডা জলে স্নান করুন। মাসেলের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে ঠান্ডা জল। ক্লান্তি দূর করে

•    ক্লান্তি দূর করতে সাহায্য করে ঠান্ডা জল। সারাদিন কাজ করার পর হয়তো গরম জলে স্নান করে অনেকেই আরাম পান। কিন্তু, ক্লান্তি দূর করে শরীরকে চনমনে করে তুলতে অনেক বেশি সাহায্য করে ঠান্ডা জল। করে দেখুন তাহলেই বুঝতে পারবেন। 
সতর্কতা বাড়ায় 

•    সকালে ঘুম থেকে উঠে কাজে যেতেই হবে কিছু করার নেই। ঠান্ডা বলে যে কাজে যাবেন না সেটা হবে না। সারাদিন ঘুম ঘুম ভাব থাকলেও কেমন যেন লাগে। গোটা দিনটাই বৃথা বলে মনে হয়। তাই ঘুমভাব কাটাতে শরীরকে সতর্ক করে তোলার জন্য ঠান্ডা জলে স্নান করুন। দেখবেন এক নিমেষে কেটে গেছে ঘুম। ঠান্ডা জল শরীরকে অনেক বেশি সজাগ করে তোলে।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন