সর্বশেষ খবর

   ‘শক্তিশালী পাসপোর্ট'    ‘পুরাতন কারাগারের জায়গায় মডেল মসজিদ নির্মাণের দাবি’    সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের ৩০ সদস্যের কমিটি অনুমোদন    শাবিতে কর্মশালা অনুষ্ঠিত    বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস আজ    গোলাপগঞ্জে টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী    বিডি জবসের প্রধান নির্বাহী আটক    ভারতে ১৯ নারীসহ ৩৭ মাওবাদী নিহত    বিশ্বনাথ আ’লীগ সভাপতি পংকি খান জেলে    হবিগঞ্জ শহরে জুয়ার আসরে পুলিশের হানা, আটক ১৫    সুস্থ জীবন যাপন করতে হলে খাদ্যের পুষ্টি জ্ঞান থাকা জরুরী: মেয়র আরিফ    খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবি সিলেট বিএনপি’র    বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা    মশা নিধনের দাবিতে রাজপথে মশারি মিছিল    ইরান পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে নতুন চুক্তির ইঙ্গিত    তৃতীয় স্ত্রীকে নিয়ে ঝামেলায় ইমরান খান    ভারতে সেই ধর্মীয় গুরু ধর্ষণে দোষী সাব্যস্ত    সাংবাদিককে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে মানববন্ধন    কানাডা, আমেরিকায় ‘স্বপ্নজাল’    এখনও টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখেন মাশরাফি, তবে....


জাতীয়

ঘুষসহ গ্রেপ্তার নৌপরিবহনের প্রধান প্রকৌশলী বরখাস্ত

সিলেট বার্তা, ২০১৮-০৪-১৬ ০২:৩৯:০৩

ঘুষ গ্রহণকালে গ্রেপ্তার হওয়া নৌপরিবহন অধিদপ্তরের চিফ ইঞ্জিনিয়ার অ্যান্ড শিপ সার্ভেয়ার (চলতি দায়িত্ব) এস এম নাজমুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে রোববার এ সংক্রান্ত এক অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে।

দুদকের অভিযানে গত ১২ এপ্রিল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় সেগুন রেস্তোরাঁ থেকে নাজমুল হককে ঘুষের টাকাসহ গ্রেপ্তার করা হয়।

দুদকের পরিচালক নাসিম আনোয়ারের নেতৃত্বাধীন একটি দল ওই অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে অংশ নেওয়া দলের অন্য সদস্যরা হলেন- সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ আবদুল ওয়াদুদ, জাহাঙ্গীর আলম, রেজাউল করিম, মো. মাসুদুর রহমান, আবদুল বারী এবং উপ-সহকারী পরিচালক আতাউর রহমান ও নাজমুস সাদাত।

গ্রেপ্তারের পরপরই রাজধানীর রমনা মডেল থানায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এর সহকারী পরিচালক আবদুল ওয়াদুদ বাদী হয়ে এ বিষয়ে মামলা দায়ের করেন। বর্তমানে কারাগারে আছেন এস এম নাজমুল হক।

দুদক সূত্রে জানা যায়, মেসার্স সৈয়দ শিপিং লাইনসের এমভি প্রিন্স অব সোহাগ নামীয় যাত্রীবাহী নৌযানের রিসিভ নকশা অনুমোদন এবং নতুন নৌযানের নামকরণের অনাপত্তিপত্র প্রদানের জন্য নাজমুল হকের কাছে গেলে তিনি ১৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বিষয়টি দুর্নীতি দমন কমিশনে অবহিত করেন। এরপর কমিশন সকল বিধি-বিধান অনুসরণ করে কমিশনের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ারে নেতৃত্বে ফাঁদ মামলা পরিচালনার অনুমতি দেয়। এর অংশ হিসেবে ঘুষের টাকার কিস্তি বাবদ ৫ লাখ টাকা রাজধানীর সেগুন হোটেলে বসে যখন প্রধান প্রকৌশলী নাজমুল হক গ্রহণ করছিলেন, ঠিক তখনই ওত পেতে থাকা দুদকের বিশেষ দলের সদস্যরা তাকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করে।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন