সর্বশেষ খবর

   ‘শক্তিশালী পাসপোর্ট'    ‘পুরাতন কারাগারের জায়গায় মডেল মসজিদ নির্মাণের দাবি’    সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের ৩০ সদস্যের কমিটি অনুমোদন    শাবিতে কর্মশালা অনুষ্ঠিত    বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস আজ    গোলাপগঞ্জে টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী    বিডি জবসের প্রধান নির্বাহী আটক    ভারতে ১৯ নারীসহ ৩৭ মাওবাদী নিহত    বিশ্বনাথ আ’লীগ সভাপতি পংকি খান জেলে    হবিগঞ্জ শহরে জুয়ার আসরে পুলিশের হানা, আটক ১৫    সুস্থ জীবন যাপন করতে হলে খাদ্যের পুষ্টি জ্ঞান থাকা জরুরী: মেয়র আরিফ    খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবি সিলেট বিএনপি’র    বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা    মশা নিধনের দাবিতে রাজপথে মশারি মিছিল    ইরান পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে নতুন চুক্তির ইঙ্গিত    তৃতীয় স্ত্রীকে নিয়ে ঝামেলায় ইমরান খান    ভারতে সেই ধর্মীয় গুরু ধর্ষণে দোষী সাব্যস্ত    সাংবাদিককে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে মানববন্ধন    কানাডা, আমেরিকায় ‘স্বপ্নজাল’    এখনও টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখেন মাশরাফি, তবে....


খেলাধুলা

নায়ক হতে পারলেন না মুস্তাফিজ, মুম্বাইয়ের হারের হ্যাটট্রিক

সিলেট বার্তা, ২০১৮-০৪-১৫ ০৯:৫৪:২৩

শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১১ রান। নিজের প্রথম তিন ওভারে ১৪ রান দেওয়া মুস্তাফিজুর রহমানের হাতে বল তুলে দিলেন রোহিত শর্মা। বাঁহাতি পেসারের প্রথম দুই বলেই চার ও ছক্কা হাঁকিয়ে স্কোর লেভেল করে ফেললেন জেসন রয়। কিন্তু মুস্তাফিজের পরের তিন বল ব্যাটেই লাগাতে পারলেন না ইংলিশ ব্যাটসম্যান। ১ বলে দরকার ১।

ম্যাচে তখন নখ কামড়ানো উত্তেজনা। আরেকটি ডট বল করতে পারবেন মুস্তাফিজ? ম্যাচ কি সুপার ওভারে যাবে? শেষ বলটা মুস্তাফিজ দিলেন অফ কাটার। কাভারে বল আকাশে তুললেন রয়। মুম্বাইয়ের প্রায় সব খেলোয়াড়ই এসেছিলেন ৩০ গজ বৃত্তের ভেতরে। বল পড়ল তাই ‘নো ম্যানস ল্যান্ডে’, ১ রান। আবারো শেষ বলে হার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের।

শেষ ওভারে নায়ক হওয়ার সুযোগ ছিল মুস্তাফিজের সামনে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারলেন না বাংলাদেশের পেসার। আইপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স হারল নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচেই। মানে হারের হ্যাটট্রিক! আজ দিনের প্রথম ম্যাচে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের কাছে ৭ উইকেটে হেরেছে রোহিতের দল। মুম্বাইয়ের করা ১৯৪ রান দিল্লি পেরিয়ে যায় শেষ বলে।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে বড় লক্ষ্য তাড়ায় শুরু থেকেই তাণ্ডব চালিয়েছেন রয়। চতুর্থ ওভারে প্রথমবার বল হাতে নিয়ে মুস্তাফিজ খরচ করেন মাত্র ৪ রান। ৫ ওভারে দিল্লি তুলে ফেলেছিল বিনা উইকেটে ৫০ রান।



ষষ্ঠ ওভারের প্রথম বলেই মুম্বাইকে ব্রেক থ্রু এনে দেন মুস্তাফিজ। বাঁহাতি পেসারের বল পুল করতে গিয়ে মিড উইকেটে রোহিতকে সহজ ক্যাচ দেন গৌতম গম্ভীর (১৫)। নিজের প্রথম দুই ওভারে ৭ রান দিয়ে মুস্তাফিজের শিকার এক উইকেট।

দ্বিতীয় উইকেটে ঋষভ পন্তে সঙ্গে ৬৯ রানের বড় জুটি গড়ে ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেন রয়। ১৬ রানের মধ্যে পন্ত (২৫ বলে ৪৭) ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে (১৩) ফিরিয়ে দিল্লিকে টেনে ধরেন হার্দিক পান্ডিয়া।

মুস্তাফিজ যখন দ্বিতীয় স্পেলে বোলিংয়ে এলেন, দিল্লির ১৮ বলে দরকার ২৪ রান। মুস্তাফিজের প্রথম পাঁচ বলে ৪ রান এলেও শেষ বলে বাউন্ডারি হাঁকান শ্রেয়াস আইয়ার। পরের ওভারে জাসপ্রীত বুমরাহ খরচ করেছিলেন মাত্র ৫ রান। কিন্তু শেষ ওভারে মুস্তাফিজ দলকে জেতাতে পারলেন না। ৪ ওভারে ২৫ রানে পেয়েছেন ১ উইকেট। দিল্লির হয়ে অভিষেকে ৪৩ বলে অপরাজিত ৯১ রানের (৬ চার, ৬ ছক্কা) ঝোড়ো ইনিংস খেলে জয়ের নায়ক রয়।

এর আগে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে তিন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের দৃঢ়তায় নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৯৪ রান করেছিল মুম্বাই। ওপেনিংয়ে নেমে সর্বোচ্চ ৫৩ রান করেন সূর্যকুমার যাদব। তার ৩২ বলের ইনিংসে ছিল ৭টি চার ও একটি ছক্কার মার। এভিন লুইসের সঙ্গে যাদবের ১০২ রানের উদ্বোধনী জুটিই মুম্বাইয়ের বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দিয়েছিল।

লুইস ২৮ বলে ৪টি করে চার ও ছক্কায় করেন ৪৮ রান। তিনে নামা ইশান কিশানের ব্যাট থেকে আসে ২৩ বলে ৪৪ রান। এ ছাড়া রোহিতের ১৮ ও পান্ডিয়ার ১১ রানে বড় পুঁজি পায় মুম্বাই। কিন্তু সেটি জয়ের জন্য যথেষ্ট হলো না।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF

আপনার মতামত দিন